Paid-by-banglait.xyz

Ads

Social link

Breaking News

স্বাগতম

সময় বিডি ডটকম এ আপনাকে স্বাগতম। আপনার আন্তরিক সহযোগিতা আমাদের কাম্য।

Ads

Featured Post

দালাল ছাড়া অনলাইনে ই-পাসপোর্ট জন্যও আবেদন করুন ঘরে বসে |ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম |How to apply e-passport Online

কিভাবে করবেন ই-পাসপোর্ট ...??? এখন আর দালাল ধরতে হবে না। এমন কি কোনো টেবেলসের অধিনে ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট অর্থাৎ ই-পাসপোর্ট এর জন্যও আবেদন করতে হবে না।…

হারানো বা নষ্ট হওয়া জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া এবং রিইস্যু করার নিয়ম ২০২১| Rules for obtaining lost or damaged national identity card 2021

Post a Comment

হারানো  ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড-

হারানো বা নষ্ট হওয়া জাতীয় পরিচয় পত্র পাওয়া উপায়। 

আপনি কি আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে ফেলেছেন? ঘরে বসেই মাত্র ১ থেকে  ৩ কর্ম দিবসের মধ্যেই আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র অনলাইনেই পেতে পারেন। ৭দিনে ১ কর্ম দিবস ধরা হয়)। বিশ্বাস হচ্ছেনা? আসুন জেনে নেই হারানো জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার উপায় এবং কিভাবে অনলাইনে আবেদন করবেন।

  • এক নজরে সম্পূর্ণ লেখা
  • হারানো জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার উপায়
  • জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর আবেদন করার পদ্ধতি
  • ধাপ ১ঃ জিডির আবেদন লিখুন অথবা, অনলাইনে জিডি করুন
  • ধাপ ২ঃ জাতীয় পরিচয়পত্রের ওয়েবসাইটে (NID services ) এ রেজিস্ট্রেশন
  • ধাপ ৩ঃ রিইস্যুর আবেদন করুন – হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের অনলাইন আবেদন
  • ধাপ ৪ঃ জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করুন
  • হারানো ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কিত প্রশ্নসমূহ

হারানো জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার উপায়

আপনি যদি ২০১৯ সালের পর জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য রেজিস্ট্রেশন করে থাকেন এবং অনলাইন হতে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করে থাকেন, আপনার কাছে ডাউনলোড করা PDF ফাইল থেকে পুনরায় প্রিন্ট করে এনআইডি পেতে পারেন।

যদি ডাউনলোড করা ফাইলটি খুজে না পান, পুনরায় NID Website  এ লগইন করে বিনা খরচে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করতে পারবেন।

হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড নিয়মঃ

যদি ২০১৯ সালের পূর্বের ভোটার হয়ে থাকেন বা আপনি ইতোমধ্যে নির্বাচন কমিশন থেকে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্ট কার্ড পেয়ে থাকেন, আপনি NID Website থেকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে পারবেন না।

আপনাকে ২৩০ টাকা ফি দিয়ে ভোটার আইডি বা জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর জন্য আবেদন করতে হবে।(টাকা বিকাশের মাধ্যমে দিতে পারবেন) 

জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর আবেদন করার পদ্ধতিঃ

জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর জন্য আপনার শুধুমাত্র নিকটস্থ থানায় করা জিডি (সাধারণ ডায়েরী) কপি সংযুক্ত করে আবেদন করতে হবে। এজন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

ধাপ ১ঃ জিডির আবেদন লিখুন অথবা, অনলাইনে জিডি করুন,

নিকটস্থ থানায় একটি লিখিত জিডির আবেদন জমা দিতে হবে। এছাড়া যদি সম্ভব হয় অনলাইনেও জিডির আবেদন করতে পারবেন।

জাতীয় পরিচয়পত্র হারানোর জিডি লেখার নিয়ম (নমুনা)

জিডির আবেদনের নমুনা ডাউনলোড করতে পারেন।

জিডি থানা কর্তৃক গৃহীত হলে, জিডি গ্রহণকারী পুলিশ অফিসারের নাম ও ফোন নম্বর সংগ্রহ করুন। যেগুলো অনলাইনে রিইস্যুর আবেদন করতে প্রয়োজন হবে।

ধাপ ২ঃ জাতীয় পরিচয়পত্রের ওয়েবসাইটে (NID service ) এ রেজিস্ট্রেশন করতে হবে 

সাধারণ ডায়েরী করা শেষে নির্বাচন কমিশনের জাতীয় পরিচয়পত্র সেবার ওয়েবসাইট (NID service ) এ রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

যদি পূর্বে একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করা থাকে, তবে এনআইডি নম্বর ও পার্সওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন।পার্সওয়ার্ড ভুলে গেলে, পুনরায় রিসেট করতে পারেন।

নতুনভাবে রেজিস্ট্রেশনের জন্য দেখুন কিভাবে জাতীয় পরিচয়পত্রের ওয়েবসাইটে একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করবেন

ধাপ ৩ঃ রিইস্যুর আবেদন করুন – হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের অনলাইন আবেদন

রেজিস্ট্রেশনের জন্য ফেইস ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হলেই আপনি NID Service)এ লগ ইন করতে পারবেন।

আপনি পূর্ব থেকে রেজিস্ট্রেশন করা থাকলে এই লিংক থেকে এনআইডি service  এ লগ ইন করুন।

লগ ইন অবস্থায় নিচের মত একটি পেইজ দেখতে পাবেন। এখান থেকে রিইস্যু অপশনে ক্লিক করুন।

হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

রিইস্যু অপশনে যাওয়ার পর জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর আবেদন ফরম পাবেন। এটি সঠিকভাবে পূরণ করে সাবমিট করতে হবে। আবেদন ফরমটি নিচের মত।

হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করুন

ফরমে লাল বক্সে দেখানো অংশে (সাধারণ ডায়েরি) জিডির তথ্য পূরণ করুন এবং উপরের ডান পাশ থেকে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন।

হারানো আইডি কার্ড বের করার নিয়ম

এখন আপনাকে রিইস্যুর আবেদনের জন্য ফি দিতে হবে। জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর আবেদন ফি- সাধারণ ৩৪৫ টাকা (ভ্যাট সহ) এবং জরুরী ৫৭৫ টাকা ভ্যাট সহ।

বিকাশের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র ফি পরিশোধ করার নিয়ম

রকেটের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র ফি পরিশোধ করার নিয়ম

ফি প্রদান শেষে আবেদনের ধরণ রিইস্যু ও বিতরণের ধরন Regular বা Urgent দিন (রেগুলার হলে রেগুলার আবেদন ফি এবং জরুরী হলে জরুরী আবেদন ফি পরিশোধ করতে হবে।)

এরপর উপরের ডান থেকে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করে আপনার জিডির স্ক্যান কপি বা সোজাসুজিভাবে তোলা ছবি আপলোড করুন। ছবি তুললে অবশ্যই ভাল আলোতে ছবি তুলবেন।

হারানো জাতীয় পরিচয়পত্রের জিডির কপি আপলোড করা হলে, আপনার আবেদটি সাবমিট করুন। আশা করা যায় ৭ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে আপনার আবেদনটি অনুমোদিত (Approved) হবে।

ধাপ ৪ঃ জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করুন

হারানো জাতীয় পরিচয়পত্রের আবেদনটি অনুমোদিত (Approved) হলেই আপনি NID services  এ লগ ইন করে আপনার ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন।

আবেদন Approve হওয়ার মেসেজ মোবাইলে পাওয়ার পর যত তারাতারি সম্ভব জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করে নিবেন। নির্দিষ্ট সময় শেষে আর ডাউনলোড করতে পারবেন না। আপনাকে নির্বাচন কমিশন অফিস থেকে আইডি কার্ড সংগ্রহ করতে হতে পারে।হারানো জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার উপায়

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার পর, এটি প্রিন্ট ও লেমিনেটিং করে আপনি ব্যবহার করতে পারবেন।

হারানো ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কিত প্রশ্নসমূহ

ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে কি করব?

ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে, আপনার নিকটস্ত থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে, ভোটার আইডি কার্ড রিইস্যুর জন্য আবেদন করুন।

জাতীয় পরিচয় পত্র হারিয়ে গেলে কিভাবে উঠাতে হয়?

আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলে, প্রথমে নিকটস্থ থানায় সাধারণ ডায়েরি করতে হবে। এরপর ডায়েরী (জিডি) কপি আপলোড করে অনলাইনে আইডি কার্ড রিইস্যুর আবেদন করতে হবে। আবেদন অনুমোদন হওয়ার সাথে সাথেই অনলাইন থেকেই জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করতে পারবেন।

জাতীয় পরিচয়পত্র হারানোর জিডি লেখার নিয়ম



Related Posts

Post a Comment