Paid-by-banglait.xyz

Social link

Breaking News

স্বাগতম

সময় বিডি ডটকম এ আপনাকে স্বাগতম। আপনার আন্তরিক সহযোগিতা আমাদের কাম্য।

Tag

Featured Post

ডাটা ছাড়া আনলিমিডেট ফ্রি ফেসবুক ব্যবহার করুন রবি ও এয়ারটেল সিমে | Use Unlimited Free Facebook Without Data on Robi and Airtel SIM

ডাটা ছাড়া আনলিমিডেট ফ্রি ফেসবুক ব্যবহার করুন রবি ও এয়ারটেল সিমে। ফ্রেসবুক ও মেসেঞ্জার ফ্রি  আমরা যারা ফ্রেসবুক এবং মেসেঞ্জার ব্যবহার করি অনেক সময় আম…

সময় বিডি |৭ নং লক্ষীপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শত বাধা বিপতির পর বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হলে প্রভাষক জহিরুল ইসলাম জহির। Somoybd|Johirul Islam johir|

Post a Comment

 লক্ষীপুর ইউনিয়নে ১১ ই নম্ববের রোজ বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন নির্বাচন বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন জহিরুল ইসলাম জহির। 


জহিরুল ইসলাম জহিরের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে নির্বাচনের অংশ গ্রহণ করে আমিরুল হক,এম এ আতাউর রহমান, আব্দুল কাদির।

সত্যের জয় সব সময় হয় 

প্রতিদ্বন্দ্বী পাঠি নানান ভাবে নির্বাচনে বাঞ্চাল করার চেষ্টা করে ছিল কিন্তু, পারে নি। কেন না সৎ পথে থাকলে কেউ কারো ক্ষতি করতে পারে না।


প্রতিদ্বন্দ্বী পাঠি চশমা মার্কার আমিরুল হক সাবেক চেয়ারম্যান নির্বাচনের এক দিন আগে রাতের বেলায় জহিরুল ইসলাম জহির এর কর্মী বাহিরনীর উপর হামলা চালায়। এই হামলায় জহিরুল ইসলাম জহির এর কর্মী বাহিনীর ৯ টি মটর সাইকেল ভাংচুর করে চশমা মার্কা লোকেরা। 

এখানে উপস্থিত ছিল চশমা মার্কার অজ্ঞাত নামের অনেক লোক। সকলের মুখে মুখোশ লাগানো ছিল। এছাড়াও কিছু ব্যক্তিকে জহিরুল ইসলাম জহির এর কর্মী বাহিনী চিনতে পেরেছে।এই মর্মে সেইদিনই তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন জহিরুল ইসলাম জহির নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান। 


জহিরুল ইসলাম জহির এর মার্কা ছিল মটর সাইকেল মার্কা। 


আমিরুল হক এর মার্কা ছিল চশমা। 


এম এ আতাউর রহমান এর মার্কা ছিল আনারস। 


আব্দুল কাদির এর মার্কা ছিল নৌকা। 


জহিরুল ইসলাম জহির মোটরসাইকেল মার্কায় 

১০ টি কেন্দ্রে কতগুলো ভোট পায় তার হিসাবঃ




১নং ওয়ার্ড দেলোয়ার নগর -ভোট পায় মটর সাইকেল মার্কায়-৬৫৭টি।


২ নং ওয়ার্ড দুই কেন্দ্র মাঠগাও+ ভাঙ্গাপাড়া -ভোট পায় মটর সাইকেল মার্কায়- ৫৭৬টি। + ৫৮টি।


৩ নং ওয়ার্ড নোয়াগাও -ভোট পায় মটর সাইকেল মার্কায়-  ৬৫৩ টি।


৪ নং ওয়ার্ড চামতলা শুড়িগাও -ভোট পায় মটর সাইকেল মার্কায়-  ৬২৯ টি।


৫ নং ওয়ার্ড  এরুখাই -ভোট পায় মটর সাইকেল মার্কায়- ৮০২টি।


৬ নং ওয়ার্ড লক্ষীপুর -ভোট পায় মটর সাইকেল মার্কায়-৭৫৫ টি।


৭নং ওয়ার্ড রসরাই-ভোট পায় মটর সাইকেল মার্কায়- ৬৯৫ টি।

৮ নং ওয়ার্ড চানপুর -ভোট পায় মটর সাইকেল মার্কায় ৮৫৯ টি।


৯ নং ওয়ার্ড বক্তারপুর -ভোট পায় মটর সাইকেল মার্কায়- ৭৮৪ টি।



আমিরুল হক চাশমা মার্কায় ১০ টি কেন্দ্রে কতগুলো ভোট পায় তার হিসাবঃ


১নং ওয়ার্ড দেলোয়ার নগর -ভোট পায় চশমা  মার্কায়-৪৮১ টি।


২ নং ওয়ার্ড দুই কেন্দ্র মাঠগাও+ ভাঙ্গাপাড়া -ভোট পায় চশমা  মার্কায়-৮২১টি। +  ৬৯১টি।



৩ নং ওয়ার্ড নোয়াগাও -ভোট পায় চশমা  মার্কায়- ২৪০টি।


৪ নং ওয়ার্ড চামতলা শুড়িগাও -ভোট পায় চশমা মার্কায়-১৮৪  টি।


৫ নং ওয়ার্ড  এরুখাই -ভোট পায় চশমা  মার্কায়- ২৭২ টি।


৬ নং ওয়ার্ড লক্ষীপুর -ভোট পায় চশমা  মার্কায়- ২৪৮ টি।


৭নং ওয়ার্ড রসরাই-ভোট পায় চশমা মার্কায়-৩৩৯ টি।


৮ নং ওয়ার্ড চানপুর - ভোট পায় চশমা মার্কায়- ৩০০ টি। 


৯ নং ওয়ার্ড বক্তারপুর -ভোট পায় চশমা  মার্কায়-৪৩৪ টি।







সকল কেন্দ্রের ভোট হিসেব করে দেখা যায় যে প্রথম অবস্থানে আছেন প্রভাষক জহিরুল ইসলাম জহির। তিনি মোট ভোট পান ৬৪৬৮ টি 



সকল কেন্দ্রের ভোট হিসেব করে দেখা যায় যে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন আমিরুল হক। তিনি মোট ভোট পান ৪০১০ টি 


প্রভাষক জহিরুল ইসলাম জহির , আমিরুল হকের চেয়ে ২৪৫৮ ভোট বেশি পেয়ে বিজয়ী হন। হ 





৭ নং লক্ষীপুর ইউনিয়নের ৯ টি ওয়ার্ডে ১১ টি কেন্দ্রে এই ভোট অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিটি কেন্দ্রে সুষ্ঠু নির্রপেক্ষ ভোট প্রদান করা হয়। 


প্রতিজন ভোটার তার স্বাধীনমত নিজের পছন্দের পার্থীকে ভোট প্রদান করে।

এমনি কি তারা সময় বিডিকে জানায় তাদের পছন্দের পার্থীকে এই প্রথম লক্ষীপুর ইউনিয়ন বাসী ভোট প্রদান করতে পেরেছেন। অন্থায় গত  পাচ বছর আগে নির্বাচনে অনেক কেন্দ্রে ঝামেলা করা হয়। সেই ঝামেলার কারণে অনেক ভোটার ভোট কেন্দ্রে আসেন নি। তারা ভেবেছিল যে এমন সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না। এরই সাথে ৭নং লক্ষীপুর বাসী ধন্যবাদ জানান প্রতি কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন কারী সকল আনসার, পুলিশ,পিসাইডিং অফিস বৃন্দুসহ সকল নির্বাচনী পার্থীর এজেন্টদের। তারা যদি কঠোর এবং নিরপেক্ষ ভাবে ভোট গ্রহণ না করত তাহলে হয়তো এটা সম্ভব হত না।


Related Posts

Post a Comment